বুক রিভিউ

সারল্যতায় ভরা থাক জীবন
❤️

‘মিনার হোসেনের ঘর উঠোন'(২০১২) আজ থেকে ৯ বছর আগে প্রকাশিত হওয়া মুহাম্মদ আকমল হোসেন এর কাব্যগ্রন্থ। পাতা উলটেই কিশোর আকমল হোসেনকে চোখের সামনে দেখতে পেলাম। ১৯৮১ তে জন্মগ্রহণ করেছেন মালদা জেলায় ব্রহ্মোত্তর গ্রামে। বাংলা সাহিত্য নিয়ে পড়াশোনা। ১৯৯৯ থেকে সম্পাদনা করেন ‘যাত্রিক’ পত্রিকা। ছোট-বড় অনেক কাগজে তাঁর লেখা প্রকাশিত হচ্ছে। কিন্তু যে আকমল মানুষকে দেখার, প্রকৃতিকে দেখার, জীবনকে দেখার দৃষ্টি পেয়েছিল তার প্রারম্ভিক দিকটির খোঁজ আমরা রাখি না। এই কাব্যগ্রন্থটি কৌতূহলী পাঠকের কাছে সেই দরজা খুলে দেবে। কাব্যের প্রথম কবিতা ‘ঘরে মানুষ আছে’-তেই কবি জানিয়ে দিয়েছেন নিজের পরিচয়:
“ঘরে মানুষ আছে
খাস প্রেম আছে—গঙ্গাধোয়া
আমি আছি—কবিও

ছন্দ পা থাক অক্ষরে অক্ষরে
যোগ হোক নতুন পংক্তি—

চলে এসো সদর ঘরে।”
হ্যাঁ কবির আহ্বান কেউ উপেক্ষা করতে পারে না। কেননা ঘরে মানুষ আছে। চলার গতিতে ছন্দ আছে। কবির আন্তরিক ডাক আছে। দরজায় দাঁড়িয়ে থাকা নয়। কবি বলেছেন: “ঘাসে ঘাসে পা ফেলে এসো”। যে গ্রাম্যতায় জীবন বাঁধা, যে মাটি সর্বংসহা হৃদয়ের অংশ, যে ঘর-গেরস্থালিতে মায়া আর ভালোবাসার হাতছানি, ভাই-বোন, চুলপাকা বাবা, কাঁথা সেলাই করা মা, সকালের চা-রুটি পরিবেশন করা মিনারা হোসেন সবাই আছে। ব্যস্ত জীবন, ছাপোষা জীবন, ব্যথা পাওয়া জীবন, নীরব জীবন, মুখর জীবন, রাতজাগা জীবন, একলা জীবন, শীত-গ্রীষ্ম-বর্ষা-শরৎ-হেমন্তের জীবন সব ভিড় করে এসেছে কবিতায়। মন আনচান করা, ভোরের বাতাস আর ভালোবাসার মানুষের ডাক আমরাও শুনতে পাই তাঁর কবিতায়:
“ওইটুকু আলোয়, দেখি
কার হাত বাঁধে মশারির খুঁট
ডাক দেয়—’এই দেখ, ঘরে এসো
শীত করলে শরীর খারাপ করবে’।”
কবি বলেছেন : “ও ঘরের ভাষা/ বাতাসের ঠোঁটে ঠোঁটে কথা” একথা যে বড় মরমী। এই স্পর্শ যে বড় ব্যাকুল করে তোলে। একে কি এড়ানো যায়? অভিমান আসে কিন্তু তা ভালোবাসায় বদলে যায়। আকাশের ঘরে চাঁদ ওঠে। নক্ষত্ররা বিছানায় লুটোপুটি খায়। যতই দুঃখের হোক, জীবনে যতই না-ভালোলাগা থাকুক পারস্পরিক হৃদয়ের সম্পর্ককে কবি অস্বীকার করেননি। বুবু ও বুয়া, দাদি ও দাদা, মা-বোন-ভাই সবাই ঘিরে আছে স্নেহের বাঁধনে। কবি পেয়ে গেছেন মিনারা হোসেনকে।যে মিনারা হোসেন কবিতা লেখে না, কিন্তু কবিতা লেখায়। কবিতা পাঠ করে। কবির শুভাকাঙ্ক্ষী হয়ে চিরদিন পাশে দাঁড়ায়:
“মিনারা হোসেন শুধু আমার জন্য
আমার কবিতার জন্য।”
আকমলের এই মিনারা হোসেনকে আমরা পেয়েছি এক সারল্যতায় নিরাভরণ জীবনের আবেগে। যাকে বাঁচিয়ে রাখা কঠিন। আকমল একে বাঁচিয়ে রেখেছেন বলেই তাঁর সারল্য আমাদেরও স্পর্শ করে। বিখ্যাত ইংরেজি সাহিত্যের লেখক অস্কার ওয়াইল্ড একবার বলেছিলেন:“Life is not complex. We are complex. Life is simple, and the simple thing is the right thing.”( — Oscar Wilde)
অর্থাৎ জীবন জটিল নয়। আমরা জটিল। জীবন সহজ, এবং সহজ জিনিস হ’ল সঠিক জিনিস। এই সহজ জিনিস, সঠিক জিনিসকে আকমলের উপলব্ধিতে অনুমিত হল। নামাজের পাটি, অজুর পানি, এক পারা কোরআন খতম প্রত্যহ জীবনযাপনের এই সারল্যতায় ভরা থাক আকমলের বোধের জগৎ। আমরা জটিলতায় যেতে চাই না। আমরা মুগ্ধতায় “সুখী গান” এবং “সুখী ধান” ছড়িয়ে দিতে চাই।

তৈমুর খান

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top